fbpx
Monday, April 22, 2024
spot_imgspot_img
HomeMobileItelমধ্যম বাজেটে স্টোরেজ ও ফাস্ট চর্জিংয়ে ভরপুর Itel P55+ তবে..

মধ্যম বাজেটে স্টোরেজ ও ফাস্ট চর্জিংয়ে ভরপুর Itel P55+ তবে..

বর্তমানে বাংলাদেশের মোবাইল বাজারে আইটেল বহুল পরিচিত একটি মোবাইল ব্র্যান্ড। স্বল্প বাজেটে ভালো মানের ফোন নির্মাণ করে থাকে তারা। 

ডিজাইন ও ডিসপ্লে: 

প্রথম দর্শনেই Itel P55+ ফোনটির ডিজাইন আপনার নজর কারবে। Plastic body হলেও ফোনটিতে গ্লোসি ভাব রয়েছে। ডিসপ্লে IPS LCD capacitive touchscreen যা ১৬ মিলিয়ন কালার সাপোর্ট করে। রিফ্রেশ রেট 90Hz যার রেজুলিউশন ৭২০ x ১৬১২। 

প্রসেসর: 

হ্যান্ডসেটটিতে প্রসেসর হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে Unisoc T606 যা ১২ এনএম আর্কিটেকচারের তৈরি। অক্টাকোর (2×1.6 GHz Cortex-A75 & 6×1.6 GHz Cortex-A55) এবং জিপিইউ হিসাবে ব্যবহার করা হয়েছে Mali-G57 MP1।

স্টোরেজ ও র‌্যাম: 

Itel P55+ ফোনটি দুটি ভিন্ন ভেরিয়েন্টে পাওয়া যাচ্ছে। একটি হলো ৪ / ১২৮ এবং অন্যটি ৮ / ২৫৬ জিবি। আপনি চাইলেই ফোন স্টোরেজের পাশাপাশি এক্সটার্নাল মেমোরি ব্যবহার করতে পারবেন। 

ক্যামেরা: 

দুইটি ক্যামেরার কম্বিনেশনে মোটামুটি মানের ছবি তুলতে পারবেন Itel P55+ স্মার্টফোনটি দিয়ে। এর প্রধান ক্যামেরা ৫০ মেগাপিক্সেল এবং অক্সিলিয়ারী লেন্স ০.০৮ মেগাপিক্সেল। সেলফি ক্যামেরায় পাবেন ৮ মেগাপিক্সেল। ছবির গুণমান সাধারণত দিনের আলোতেই ভালো হয়। তবে রাতের বেলায় ছবিগুলো একটু গোলমেলে হতে পারে। ফোনটির সামন বা পিছনের ক্যামেরা দিয়েই video করতে পারবেন।

পারফরম্যান্স: 

Unisoc T606 প্রসেসটি সাধারণ কাজের জন্য উপযোগী হলেও হেভি কাজের ক্ষেত্রে পারফরম্যান্স কিছুটা কম পাওয়া যায়। ফোনটি দিয়ে ভারী কোন গেম খেলতে পারবে না। কিন্তু ১২৮ জিবি রম এবং ২৫৬ জিবি স্টোরেজ থাকার কারণে ফোন ছবি বা ভিডিও করতে চিন্তা নেই।

ব্যাটারি: 

5000 mAh এর লিথিয়াম পলিমারের ব্যাটারির কারণে দিনভর কাজ করতে পারবেন। চার্জার হিসেবে পাচ্ছেন ৪৫ watt এর ফাস্ট চার্জার। ৭০% চার্জ হতে সময় নিবে প্রায় ৩০ মিনিট। 

অন্যান্য ফিচার: 

ফোনটির অন্যান্য যে সকল ফিচার থাকছে তাহলো ওয়াই ফাই, জপিএস, ব্লুটুথ, ইউএসবি টাইপ- সি। সেন্সর হিসেবে থাকছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট,  unspecified sensors। 

স্পেসিফিকেশন: 

মডেল Itel P55+ 
উন্মোচিত২৬, জানুয়ারি ২০২৪ 
সর্বশেষ সংস্করণ১৩, ফেব্রুয়ারি ২০২৪
নেটওয়ার্ক 2G, 3G, 4G 
প্রযুক্তিGSM / HSPA / LTE
2জি ব্যান্ডজিএসএম ৮৫০ / ৯০০ / ১৮০০ / ১৯০০ – SIM 1 & SIM 2
3জি ব্যান্ডএইচএসডিপিএ ৮৫০ / ৯০০ / ১৯০০ / ২১০০ 
4জি ব্যান্ডLTE 
আকার8.0 mm thickness 
গতিHSPA+/LTE
সিমDual SIM (Nano-SIM, dual stand-by) 
ওজন১৮৭ গ্রাম (৬.৮৮ oz)
ডিসপ্লেধরণ: IPS LCD capacitive touchscreen, ১৬ মিলিয়ন কালার, 90Hz মাপ: ৬.৬ ইঞ্চি, ১০৪.৬ সিএম২ রেজুলেশন: ৭২০ x ১৬১২ পিক্সেল, ২০:৯ অনুপাত (~২৬৭ ppi ঘনত্ব) 
অপারেটিং সিস্টেমঅপারেটিং সফটওয়্যার: Android 13চিপসেট: Unisoc T606 (১২ এনএম)প্রসেসর: অক্টাকোর (2×1.6 GHz Cortex-A75 & 6×1.6 GHz Cortex-A55)জিপিইউ: Mali-G57 MP1
মেমরিকার্ড স্লট: microSDXC অভ্যন্তরীণ: ১২৮/২৫৬ জিবি 
সিকিউরিটি সিস্টেমFingerprint, Face Unlock 
র‌্যাম৪/৮ জিবি
রেডিওনা  
ক্যামেরাপিছনে: ৫০ মেগাপিক্সেল, ০.০৮ মেগাপিক্সেলফিচার: Dual-LED flash, panorama ভিডিও: হ্যাঁসেলফি: ৮ মেগাপিক্সেল ভিডিও: হ্যাঁফিচার: HDR
ব্যাটারি৫০০০ এমএএইচ, ফাস্ট চার্জিং ৪৫ ওয়াট, 70% in 30 min (advertised), Non-removable Li-Po 
সাউন্ডলাউড স্পিকার: ‘‘হ্যাঁ’’ ৩.৫ মিমি জ্যাক ‘হ্যাঁ’
নির্মাণ Glass front, plastic frame, plastic back
অন্যান্যWi-Fi, GPS, Bluetooth, USB Type-Cসেন্সর : Fingerprint (side-mounted); unspecified sensors    
মূল্য৳১৫,০০০
প্রস্তুতকারকচীন
কালারAstral Gold, Astral Purple, Astral Black

ভালো দিক: 

  1. এই বাজেটে দুর্দান্ত একটি ফোন। 
  2.  ১২৮ জিবি এবং ২৫৬ জিবি স্টোরেজের কারণে ছবি, ভিডিও করতে কোন টেনশন থাকবে না।
  3. ৫০০০ এমএএইচ এর লিথিয়াম পলিমারের ব্যাটারি থাকায় চার্জের চিন্তা নেই। 
  4. ৪৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জারের জন্য ফোনটি ৭০% চার্জ হতে সময় লাগবে ৩০ মিনিট।

দুর্বল দিক:

  1. প্রসেসর তুলনামূলক দূর্বল। ফলে ফোনের পারফরম্যান্স কিছুটা কম হতে পারে।
  2. ৫-জি নেটওয়ার্ক সাপোর্টেড নয়।
  3. রেজুলেশন কম অন্য ফোনের তুলনায়।

এই ফোনসহ অনলাইনে আপনার প্রয়োজনীয় পণ্য কিনতে ক্লিক করুন।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

Elliana Murray on ONLINE SHOPPING
Discover phone number owner on Fake app চেনার উপায়